শীতে কমলা লেবু খুব উপকারী

শীতে কমলা লেবু খুব উপকারীশীত আসতেই এক দিকে ত্বকে টান টান ভাব, অন্য দিকে বাজার ভরে উঠছে সুন্দর, পাকা কমলালেবুতে।বুঝতেই পারছেন কী বলতে চাইছি। শুষ্ক ত্বকের যত্ন কমলালেবুর থেকে ভাল আর কেই বা রাখতে পারে? সমাধান যখন হাতের এত কাছেই তখন চট করে জেনে নিন কমলালেবুর পাঁচটা জরুরি প্যাক।

১.কমলার খোসা ও দই- এক টেবিল চামচ কমলা খোসার গুঁড়োর সঙ্গে দুই টেবিল চামচ দই মেশান। গোটা মুখে এই প্যাক লাগান। ২০ মিনিট রেখে শুকিয়ে গেলে পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। টোনড লাগবে দেখতে।

২.কমলার খোসা, হলুদ ও মধু– এই প্যাক টানা বেশ কিছু দিন ধরে লাগালে ত্বকের পোড়া ভাব দূর হবে। এক টেবিল চামচ কমলার খোসা গুঁড়ো, এক টেবিল চামচ হলুদ ও এক টেবিল চামচ মধু মিশিয়ে গোটা মুখ, গলায় লাগান। ১০ মিনিট পর গোলাপ জল দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন।যদি আপনার ব্রণ থাকে তাহলে এই প্যাক লাগাবেন না।

৩.কমলার খোসা, আখরোট ও চন্দন– এই স্ক্রাব ত্বকের মরা চামড়া দূর করার জন্য খুব ভাল।এক টেবিল চামচ কমলার খোসা গুঁড়ো, এক টেবিল চামচ চন্দন গুঁড়ো ও এক টেবিল চামচ আখরোট গুড়োর সঙ্গে দুই থেকে তিন ফোঁটা লেবুর রস ও দুই টেবিল চামচ গোলাপ জল মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে নিন। এই প্যাক মুখে লাগিয়ে পাঁচ মিনিট রেখে ঠান্ডা পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। মড়া চামড়া দূর করে উজ্জ্বল ভাব আনবে ত্বকে।

৪.কমলার খোসা,মুলতানি মাটি, গোলাপ জল- তৈলাক্ত ত্বকের জন্য এই প্যাক খুব ভাল। এক টেবিল চামচ কমলার খোসা গুঁড়ো, এক টেবিল চামচ মুলতানি মাটির সঙ্গে গোলাপের পানি মিশিয়ে মিহি পেস্ট তৈরি করে নিন।সারা মুখ ও গলায় ভাল করে লাগিয়ে নিন। পুরোপুরি শুকনোর আগে আঙুলের আলতো চাপে মাসাজ করে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। ব্ল্যাক হেডস, হোয়াইট হেডস দুটোই দূর করবে এই প্যাক।

৫.কমলার খোসা ও লেবু- ট্যান তুলে ত্বক উজ্জ্বল করার কাজে অসাধারণ এই প্যাক। দুই টেবিল চামচ কমলার খোসা গুঁড়ো, কয়েক ফোঁটা লেবুর রস, এক টেবিল চামচ চন্দন গুঁড়ো মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। সারা মুখে ভাল করে লাগিয়ে ৩০ মিনিট রেখে ঠান্ডা পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে নিন। ব্রণ থাকলে এই প্যাক খুব ভাল কাজ করবে।

Related Posts