ঠোঁটের যত্ন নিন

ঠোঁটের যত্ন আবহাওয়া বদলের প্রভাব পড়ছে ত্বকে, তবে সবচেয়ে বেশি বোধ হয় ভোগান্তি হচ্ছে ঠোঁট ফাটা নিয়েই। এর সঙ্গে ঠোঁট কালো হয়ে যাওয়াও আছে। এসব নিয়েই আজকের আয়োজন।

রুক্ষতা ও ঠোঁট ফাটা রোধ করতে

 অল্প মধু, লেবুর রস ও চিনি দিয়ে ঠোঁটে হালকা ম্যাসাজ করুন। এরপর ধুয়ে ফেলুন।

 সমপরিমাণ গ্লিসারিন ও অলিভ অয়েল মিশিয়েও ঠোঁটে লাগিয়ে রাখতে পারেন। এটি ময়েশ্চারাইজারের কাজ করবে।

 চালের গুঁড়া সামান্য পানিতে মিশিয়ে ১৫-২০ মিনিট ঠোঁটে লাগিয়ে রাখুন। এতে ঠোঁটের মরা চামড়া উঠে আসবে।

 ঠোঁট শুকিয়ে গেলে একটু পরপর জিব দিয়ে ঠোঁট ভেজানো, নখ দিয়ে ঠোঁটের চামড়া খুঁটার মতো অভ্যাস ত্যাগ করতে হবে।

 সব সময় ভালো মানের লিপবাম বা লিপজেল ব্যবহার করতে হবে।

ঠোঁট কালচে হয়ে যাওয়াটাও ভালো কোনো লক্ষণ নয়। তাই কী কারণে ঠোঁটের স্বাভাবিক গোলাপি ভাব নষ্ট হয়ে যেতে পারে তা আগে থেকেই জেনে নেওয়া প্রয়োজন। ধূমপান ও অতিরিক্ত মাত্রায় চা কফি পানের অভ্যাস আছে যাঁদের, তাঁদের ঠোঁট কালো হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা অনেক বেশি। যাঁরা রোদে বেশি বের হন তাঁরাও এই সমস্যায় পড়তে পারেন। এমনকি আর্দ্রতার অভাবও এর জন্য খানিকটা দায়ী। অতিরিক্ত প্রসাধনী ব্যবহারের ফলে যেমন ত্বক ও চুলের ক্ষতি হয় তেমনি ঠোঁটের ত্বকেও এর প্রভাব পড়ে। তাই সব সময় লিপস্টিক ব্যবহার করা উচিত নয়। আরেকটি বিষয় মনে রাখতে হবে যে শুধু রং-বেরঙের লিপস্টিক লাগালেই চলবে না, এর মান ও মেয়াদ উত্তীর্ণের তারিখ সম্পর্কে নিশ্চিত হয়ে তবেই তা ব্যবহার করা উচিত।

ঠোঁটের স্বাভাবিক রং বজায় রাখতে

 মধু এবং গোলাপের পাপড়ির পেস্ট ঠোঁটে ২০ মিনিট লাগিয়ে রাখলে ঠোঁটের কালো ভাব দূর হয়ে যাবে।

 কোকো বাটারও ঠোঁটের কালচে হয়ে যাওয়ার প্রতিকারক হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন।

 ডালিম, শসা ও আঙুরের রসের সঙ্গে অল্প মধু মিশিয়েও ঠোঁটে লাগানো যেতে পারে। মধু ভালো ময়েশ্চারাইজারের কাজ করে।

 কাঁচা দুধ তুলায় ভিজিয়ে ১০-১৫ মিনিট ধরে ঠোঁটে ঘষুন।

 ঠোঁটের কালো হয়ে যাওয়া রোধ করতে হলে ধূমপান ও অতিরিক্ত চা-কফি পানের অভ্যাস ছেড়ে দিন।

 সব সময় ভালো ব্র্যান্ডের লিপস্টিক ব্যবহার করুন। ব্যবহারের পর পরিষ্কার পাতলা কাপড় বা তুলায় অলিভ অয়েল, নারকেল তেল বা বেবি অয়েল ভিজিয়ে আস্তে আস্তে ঘষে ঠোঁট থেকে লিপস্টিক ভালোমতো তুলে ফেলতে হবে। তিলের তেল ঠোঁটের আর্দ্রতা বজায় রাখতে সাহায্য করে।

ঠোঁট ফাটা রোধ করতে রঙিন জেল টুথপেস্ট ব্যবহার না করে সাদা রঙের টুথপেস্ট ব্যবহার করা ভালো, জানালেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চর্মরোগ বিভাগের প্রধান অধ্যাপক রাশেদ মোহাম্মদ খান। ফলের খোসার রসও ঠোঁটে লাগানো যাবে না। ঠোঁটে কোনো প্রসাধনী ব্যবহারের পর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দিলে সেটা আর ব্যবহার করে উচিত হবে না। এই আবহাওয়ায় নিয়মিত ঠোঁটে পেট্রোলিয়াম জেলি মাখুন এবং রোদে বের হলে ছাতা ব্যবহার করুন।

Related Posts

Comments

comments