ব্রেস্ট বড় করার উপায়

Hot-and-sexy-female-cricket-hosts-on-TV1. নিয়মিতভাবে গোসল করার পুর্বে সরিষার তেল হালকা গরম করে অথবা পিউর মধু হাতে নিয়ে ১০-১৫ মিনিট ম্যাসাজ করলেই মাস খানেক এর মধ্যে ফলাফল পাবেন।

2. ব্রেস্ট বড় হয় ম্যাসাজ এর জন্য, ৩৪-৩৬ সাইজ হল পারফেক্ট সাইজ, অনেকেরই এর চেয়ে অনেক ছোট ।

3. আসলে কোন পিল বা ক্রিম ব্যাবহার করলে ব্রেস্ট বড় হবে এমন ধারনা ভুল, বরং এগুলোর অনেক সাইড ইফেক্ট রয়েছে। ব্রেস্ট ক্যান্সার পর্যন্ত হতে পারে ক্রিম ব্যাবহার করার ফলে।

প্রশ্নঃ লিঙ্গ কতটা চওড়া হওয়া উচিত?

উত্তরঃ এ বিষয়টি নিয়ে বিশেষ কোনো গবেষণা হয়নি। ফলে লিঙ্গের পরিধি কতটা হলে স্বাভাবিক তা বলা হয়নি কোথাও। যেহেতু লিঙ্গের পরিধির মাপ সঠিক হয় না এবং লিঙ্গের বিভিন্ন স্থানে এর মাপ বিভিন্ন রকম তাই এ নিয়ে যা কিছু বলা হয়েছে তা বিশ্বাসযোগ্য নয়।

প্রশ্নঃ যৌন-মিলনের সময় বীর্যপাত কেন হয় ?

উত্তরঃ বীর্য থাকে লিঙ্গ থেকে অনেক দূরে দু’টি পৃথক আধারে। আমরা সবাই জানি যে, সুস্বাদু খাবার দেখলে আমাদের জিভ দিয়ে পানি গড়িয়ে পড়ে । কিন্তু কেন ? সবাই ধরে নেয়, আমাদের জিভের মধ্যে অনেকগুলো সূক্ষ্ম স্পর্শকাতর স্নায়ুতন্ত মিলিত হয়েছে। সুস্বাদু খাবার দেখলে সবার মধ্যে এক ধরনের আবেগের সঞ্চার হয়। এই আবেগে কোমল স্নায়ুগুলোর ওপর চাপ পড়ে উত্তেজনা সৃষ্টি করলে এক ধরনের লালা রস জিভ থেকে ক্ষরন হয়, তাই ওভাবে জিভ দিয়ে পানি গড়িয়ে পড়ে। লালা জাগার সময় যে আবেগ সঞ্চার হয়, জিভের পানির আকারে তা না পড়ে গেলে স্নায়ুতন্ত গুলোর জ্বালা কমে না, তাই লালসার তাড়নায় আমরাও কষ্ট পাই। অর্থাত্ জিভের পানি হলো জিভের স্নায়ুর উত্তেজনার নিবৃত্তি। ঠিক তেমনি বীর্যপাতের ফলে জনন তন্তের উত্তেজিত স্নায়ুতক্তের নিবৃত্তি। যতক্ষন না বীর্যপাত হচ্ছে ততক্ষন কামোত্তেজনার নিবৃত্তি নেই ।

Related Posts