নারীস্বাস্থ্য সমস্যা – অনিয়মিত মাসিক

indexনারীস্বাস্থ্য সমস্যা – অনিয়মিত মাসিক

 নারীস্বাস্থ্য সমস্যা – অনিয়মিত মাসিক
সমস্যা: আমার বয়স ২১। অবিবাহিত। আমার অনিয়মিত মাসিক সমস্যা। প্রায় দুই বছর ধরে দু-তিন মাস পর মাসিক হচ্ছে। আমি দুজন স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞকে দেখিয়েছি। প্রথম জন তিন মাস আয়রন জিফক্স খেতে বলেছিলেন এবং দুই মাস খাওয়ার পর মাসিক হয় এবং পরের মাসেও হয়, তাই আর ওষুধ খাইনি।
কিন্তু এর পর থেকে আবার সমস্যা হয়। দ্বিতীয়বার আরেকজন বিশেষজ্ঞকে দেখালে তিনি আমাকে আল্ট্রাসনোগ্রাফ, রক্ত পরীক্ষা করিয়ে কোনো সমস্যা পাননি। তিনি আমাকে সাত দিন নরকুলেট খেতে বলেন। খাওয়ার পর মাসিক হয় এবং পরের মাস থেকে আবার সমস্যা দেখা দেয়। ওষুধ খেলে মাসিক হয়।
আপা, আমি এর স্থায়ী সমাধান চাই। আমার মাসিক হওয়ার আগে বা পরে কোনো ব্যথা বা অসুস্থতা অনুভব করি না। আগে মাসিক সাত দিন হতো, এখন চার দিন হয়। খুব বেশি রক্ত যায় না। কিছুতেই স্বস্তি পাচ্ছি না। আপনি সমাধান দিয়ে আমার মানসিক কষ্ট দূর করবেন আশা করি।
মনি
ঠিকানা প্রকাশে অনিচ্ছুক
পরামর্শ: তোমার অনিয়মিত মাসিক হচ্ছে। এটা মেয়েদের সাধারণ সমস্যার একটি। চিঠিতে তোমার ওজন ও উচ্চতা লেখনি। অনিয়মিত মাসিকের সঙ্গে স্থূলতার একটা সম্পর্ক রয়েছে। আয়রন ট্যাবলেট মাসিক নিয়মিত করার ওষুধ নয়। ট্যাবলেট নরকুলেট খেলে শুধু ওই মাসেই তোমার উইথড্রল ব্লিডিং হবে, কিন্তু এটা কোনো স্থায়ী সমাধান দেবে না। তোমার রক্তের কী পরীক্ষা করিয়েছে তাও জানাওনি। রক্তে হরমোনের মাত্রা পরীক্ষা করা জরুরি। ওজন বেশি থাকলে ওজনও কমাতে হবে। হরমোন পরীক্ষার ফলাফল অনুযায়ী চিকিত্সা নিলে স্থায়ী সমাধান পাবে বলে আশা করি। তুমি স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞ অথবা হরমোন বিশেষজ্ঞের সঙ্গেও আবার যোগাযোগ করতে পারো।
পরামর্শ দিয়েছেন
রওশন আরা খানম
সহকারী অধ্যাপক, স্ত্রীরোগ ও প্রসূতিবিদ্যা বিভাগ
শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল ঢাকা।
সূত্র: দৈনিক প্রথম আলো, অক্টোবর ২১, ২০০৯

Related Posts

Comments

comments